সন্ধান

রুদ্ধশ্বাস 'টি টোয়েন্টি'তে চ্যাম্পিয়ন ভারত

বিশ্ব ক্রিকেটে সেরার শিরোপাটা অধরাই থেকে গেল ইংরেজদের। রবিবার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে তীরে এসে তরী ডুবল কুক বাহিনীর। বৃষ্টি বিঘ্নিত খেলা বহু দোলাচলের পর শুরু হলেও তা আসলে যেন টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল হয়ে দাঁড়াল। আজকের ম্যাচ এটাই বুঝিয়ে দিল, ৫০ ওভারের ক্রিকেটের জীবনাবসান সময়ের অপেক্ষা মাত্র। টি টোয়েন্টিই বাঁচাতে পারে ক্রিকেটকে। টি-২০ ই হয়ে গিয়েছে ক্রিকেটের অক্সিজেন।

এদিন নির্ধারিত সময়ের বেশ কয়েক ঘণ্টা বাদে খেলা শুরু হলে টসে জিতে ভারতকে ব্যাট করতে পাঠান ইংরেজ অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুক। পরিকল্পনামাফিক ক্লিক করে যান রবি বোপারা। ৪ ওভারে ২০ রান দিয়ে তিনটি উইকেট নিয়ে ভারতীয় ব্যাটিং লাইন আপের মাস্তানিকে চুপ করিয়ে দেন তিনি। একমাত্র কোহলি ৪৩, শিখর ধবন ৩১ ও রবীন্দ্র জাডেজা ৩৩ ছাড়া কেউই দাঁড়াতেই পারেননি।

উইকেট বাঁচাতে গিয়ে মন্থর পিচ ও বৃষ্টি ভেজা আউটফিল্ডের সঙ্গে লড়াই করে ভারত ২০ ওভারে সাত উইকেট হারিয়ে তোলে ১২৯ রান।

এত অল্প রানের পুঁজি নিয়েও দুর্দান্ত লড়াই করে ধোনিবাহিনী। জাডেজা, অশ্বিন, ইশান্তরা জেতার জন্য মরিয়া হয়ে সব কৌশল উজাড় করে দেন। তাঁরা প্রত্যকেই দুটি করে উইকেট নেন। ভারতীয়দের মরিয়া ফিল্ডিং আজ অন্তত নিশ্চিত কয়েকটি বাউন্ডারি বাঁচিয়ে দেয়। ইংল্যান্ডের ইয়ন মরগ্যান ও রবি বোপারা ৩৩ ও ৩০ রান করেন। একটা সময় ৬ বলে ১৫ রান দরকার ছিল কুকদের। শেষ ওভারে অশ্বিন ট্রট, ট্রেডওয়েলকে চাপের মুখে ব্যাট চালাতেই দেননি। অবশেষে ৫ রানে ম্যাচ জিতে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির মুকুট মাথায় পড়লেন সাম্প্রতিককালের সেরা ক্রিকেট অধিনায়ক মহেন্দ্র সিংহ ধোনি।