সন্ধান

বিরাট মাথাটা কম গরম করো, বলছেন আজহার

সচিন তেন্ডুলকরকে ব্যাটিং স্টান্স বদলানোর পরামর্শ দেওয়ার পর মহম্মদ আজহারউদ্দিনের এ বার টার্গেট বিরাট কোহলি। তাঁকে ‘ভারতের পরবর্তী অধিনায়ক’ মেনে নিয়ে প্রাক্তন জাতীয় অধিনায়ক আজহারের কোহলিকে পরামর্শ, “ওকে নিজের আগ্রাসী মেজাজটাকে ঠান্ডা করতে হবে। প্রকৃত নেতার মতো আচরণ দেখাতে হবে।”

জিম্বাবোয়ে সফরে দু’ম্যাচ বাকি থাকতেই ভারতকে একদিনের সিরিজে জয় এনে দিয়েছেন অস্থায়ী অধিনায়ক কোহলি। পাশাপাশি দ্বিতীয় ম্যাচে টিভি রিপ্লেতে তৃতীয় আম্পায়ার তাঁকে আউট দেওয়ার পর কোহলি মাঠের আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক জুড়ে দেওয়া ছাড়াও ক্ষোভে ব্যাট ছুড়ে দেন। যার কয়েক দিনের মধ্যেই কোহলি প্রসঙ্গে আজহারের মন্তব্য, “নিজের মেজাজকে সামলানো শিখতে হবে ওকে। সব সময় এ রকম হাবভাব মোটেই তুমি দেখাতে পারো না। আমি জানি কোহলি খুব ভাল ক্রিকেটার। ওর বিরাট নামডাক। ওকে ভবিষ্যতের ভারত অধিনায়ক হিসেবে দেখা হয়। কিন্তু ওকে একজন নেতার মতোই আচরণ করতে হবে।” সঙ্গে অবশ্য আজহার এ-ও বলছেন, “কোহলির স্বভাবটা যে একটু অন্য ধরনের সেটা আমি বুঝি। তবে সবাই ওর দিকে তাকিয়ে আছে। আগ্রাসী মানসিকতা জিনিসটা ভাল। কিন্তু সেটা নিজের মনের ভেতর রাখাই ভাল। প্রকাশ্যে এসে পড়লে ব্যাপারটা নিজের পক্ষেই খারাপ হয়ে দাঁড়ায়। বিরাট ওর মাথাটা একটু কম গরম করলে তাতে নিজেরই ভাল হবে।”

আজহার আরও মনে করেন, ইংল্যান্ডে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও জিম্বাবোয়ে সফরে এক দিনের সিরিজ বিদেশে পরপর তিনটে ট্রফি জয়ী তরুণ ভারতীয় দল এত ভাল খেলছে যে, সহবাগ, গম্ভীর, যুবরাজ, জাহির খানের মতো সিনিয়র প্লেয়ারদের পক্ষে জাতীয় দলে ফেরার কাজটা খুব কঠিন হয়ে গেল। যদি না কোনও তরুণ ক্রিকেটার চোটটোট পান! ডিআরএস নিয়ে আজহারের মন্তব্য, “অতিমাত্রায় প্রযুক্তি আম্পায়ারিংটাকে গুবলেট করে দিচ্ছে। এখনকার ক্রিকেটে ক্রিজের দু’হাত বাইরে কেউ রান আউট হলে সেই পরিষ্কার আউটকেও থার্ড আম্পায়ারের কাছে রিভিউয়ের জন্য পাঠানো হচ্ছে! এ সবেই আরও বিতর্ক বাঁধছে।”

আনন্দবাজার পত্রিকা